Skip to content

মোবাইল কিভাবে বুঝবেন ভাইরাস দ্বারা ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে? এবং কি করবেন সেই সময়

আমাদের মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহারকারী এর পরিমাণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। প্রযুক্তির ফাঁক ফোঁকর দিয়ে অনেক সময় আমরা নিজেরাই নিজেদের ক্ষতি ডেকে আনছি। মোবাইল ফোন এর মধ্যে হুট হাট করে বিভিন্ন ভাইরাস আক্রান্ত হচ্ছে।

যা রীতিমত আমাদের জন্য বেশ ক্ষতি এর কারণ হিসেবে দাড়িয়েছে। স্মার্ট ফোন ছাড়া আমাদের জীবনকে আজকাল কল্পনা করাও মুশকিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে দেশে যখন কোভিড আক্রান্ত হয় তারপর থেকে মোবাইল এর ব্যাবহার বেড়েছে। কারণে অকারণে আমরা প্রায় অনেকেই মোবাইল এর সাথে যুক্ত হয়ে পড়েছি।

<img class=”size-full wp-image-37184 aligncenter” src=”https://technicalbangla.com/wp-content/uploads/2023/06/মোবাইল-কিভাবে-বুঝবেন-ভাইরাস-দ্বারা-ক্ষতির-সম্মুখীন-হয়েছে-এবং-কি-করবেন-সেই-সময়-02.jpg” alt=”” width=”268″ height=”188″ />

এখনকার যুগে মানুষ অনেকটা অনলাইন নির্ভর হয়ে যাওয়াতে সাইবার আক্রমণের ঝুঁকিও দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। বর্তমান সময়ে সাইবার আক্রমণ সম্পর্কে কাউকে নতুন করে কিছু বলার প্রয়োজন পড়ে না। অনেক সময় বিভিন্ন স্পাই অ্যাপস বা ওয়েবসাইট আমাদের ওপর নজরদারি করেন। তো কিভাবে বুঝবেন আপনার শখের মোবাইল টি ভাইরাস আক্রান্ত নাকি।

আপনার স্মার্টফোনের কিছু কিছু লক্ষণ খেয়াল করলে বুঝতে পারবেন যে আপনার স্মার্টফোনটিতে কোনো প্রকার ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার আছে কি না। সেগুলো হলো- যদি কখনো দেখেন প্রয়োজন এর অতিরিক্ত মোবাইল এর চার্জ শেষ হয়ে যাচ্ছে, অতিরিক্ত ডাটা চার্জ হচ্ছে এইসব বিষয় গুলো বিশেষ করে ভাইরাস এর লক্ষণ গুলো প্রকাশিত করে থাকে।

<img class=”size-full wp-image-37185 aligncenter” src=”https://technicalbangla.com/wp-content/uploads/2023/06/মোবাইল-কিভাবে-বুঝবেন-ভাইরাস-দ্বারা-ক্ষতির-সম্মুখীন-হয়েছে-এবং-কি-করবেন-সেই-সময়-03.jpg” alt=”” width=”300″ height=”168″ />

অনেক সময় অহেতুক অ্যাড বা অ্যাপ ইনস্টল হয়ে থাকে আবার নিজের অনুমতি ছাড়া সব অ্যাকসেস চলে যাওয়া ইত্যাদি হলেও মোবাইল ফোনে ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত এর সম্ভাবনা থেকে যায়। যা পার্সোনাল ডাটা হ্যাক করে ক্ষতি করতে পারে। অনেক সময় স্প্যাম ম্যাসেজ আসতে থেকে যেগুলো আসার কথা না,, এইগুলো ভাইরাস আক্রান্ত হলে হয়ে থাকে।

ফোন স্লো হয়ে যায় হুট করে, বন্ধ হয়ে যায় সব ক্ষেত্রে অতিরিক্ত সীমা অতিক্রম করতে থাকে যার ফলে মূলত ফোন এর হার্ডওয়্যার প্রোগ্রামিং গুলো কে বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হয়। অন্য কেউ যেকোনো জায়গা থেকে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিতে পারবে।

<img class=”size-full wp-image-37186 aligncenter” src=”https://technicalbangla.com/wp-content/uploads/2023/06/মোবাইল-কিভাবে-বুঝবেন-ভাইরাস-দ্বারা-ক্ষতির-সম্মুখীন-হয়েছে-এবং-কি-করবেন-সেই-সময়-04.jpg” alt=”” width=”275″ height=”183″ />

কিভাবে ভাইরাস থেকে নিজেকে নিরাপদ করবেন,!! প্রথমত ভাইরাস এর লক্ষণ হলো অন্য ডিভাইস থেকে নিজের ডিভাইস এ পেনড্রাইভ দিয়ে বা কোনো তথ্য কে নেওয়া থেকে বিরত থাকা। কারণ অনেক ক্ষেত্রে ভাইরাস এর উৎস এইসব থেকেই ছড়িয়ে পড়ে। এটা থেকে বিরত থাকতে হবে। আপনি যদি কখনো দেখেন আপনার ফোনে এমন কিছু অ্যাপ আছে যা আপনি ইনস্টল করেন নী কিন্তু হয়ে গেছে, সাথে সাথে আনইনস্টল করে নিন হতে পারে ভাইরাস এর জন্য হয়েছে।

অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস গুলো এর মধ্যে অনেক সময় ক্যাচ ডাটা তৈরি হয় সময় করে পরিষ্কার করুন। ভাইরাস যেহুতু ইন্টারনেট এর সাহায্যে আজকাল ছড়িয়ে পড়ে সুতরাং মাঝে মাঝেই অ্যাপস এর ডাটা ক্লিয়ার করে ব্যাবহার এর চেষ্টা করতে থাকুন। ফলে নিরাপত্তা বিজয় থাকবে।স্মার্টফোনের ভাইরাস আমাদের সকলের জন্য খুবই ক্ষতিকারক একটি জিনিস।

<img class=”size-full wp-image-37187 aligncenter” src=”https://technicalbangla.com/wp-content/uploads/2023/06/মোবাইল-কিভাবে-বুঝবেন-ভাইরাস-দ্বারা-ক্ষতির-সম্মুখীন-হয়েছে-এবং-কি-করবেন-সেই-সময়-05.jpg” alt=”” width=”259″ height=”194″ />

সব সময় চেষ্টা করতে হবে যে কোনো ভাবেই যেন ভাইরাস প্রবেশ করতে না পারে মোবাইল ফোনের মধ্যে। কারণ এই কারনেখেয়াল রাখতে হবে যেন ফোনে কোনো প্রকার ম্যালওয়্যার ভাইরাস যাতে আক্রমণ না করতে পারে। তো এই ছিল বিস্তারিত ধন্যবাদ সবাইকে আমার পোস্টটি পড়ার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *