Skip to content

স্মার্টফোনকে ডাম্বফোনে পরিণত করার সহজ উপায়

বর্তমান সময়ে স্মার্টফোন মানুষের জীবনকে আরো সহজ ও সুন্দর করে তুলছে। তবে স্মার্টফোনের অতিরিক্ত ব্যবহার মানুষের জীবনে ব্যাপক ক্ষতি নিয়ে আসতে পারে। বর্তমান সময়ে ফোনের মধ্যে থাকা হাজারো সুবিধার ফলে মানুষ দিন দিন ফোনের প্রতি আসক্ত হয়ে যাচ্ছে।

আমরা সবাই ফোনের মাধ্যমে আমাদের পরিবার, বন্ধু বান্ধবের সাথে যোগাযোগ করে থাকি। তবে আমরা শুধুমাত্র এই সুবিধা নিয়েই থেমে থাকি না। আমরা ফোনের বাকি সকল সুবিধা নিতে গিয়ে নিজেদের প্রয়োজনীয় সময় নষ্ট করে ফেলি। এসব দিক থেকে চিন্তা করলে আমাদের এমন এক ধরনের ফোন দরকার যার মাধ্যমে আমরা শুধু প্রিয়জনের সাথে যোগাযোগই করতে পারবো। এতে করে আমাদের অতিরিক্ত সময় নষ্ট হবে না। এ ধরনের ব্যাসিক ফোনগুলোকে ডাম্বফোন অথবা ফিচার ফোন বলে। অনেকে আবার সেগুলোকে বাটন ফোন নামেও ডেকে থাকে।

তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে, আমরা আমাদের স্মার্টফোনকেই একটি ডাম্বফোনে পরিণত করতে পারি। আপনি আপনার আইফোন বা এন্ড্রয়েড ফোন এর প্রতি আসক্তি কমিয়ে নিয়ে আসতে চাইলে সেটিকে একটি ডাম্বফোনে রুপান্তর করে নিতে পারেন। আজকের আর্টিকেলে আমরা স্মার্টফোনকে ডাম্বফোনে পরিণত করার পদ্ধতি সম্পর্কে জানবো।

ফোনকে ফ্যাক্টরি রিসেট করার মাধ্যমে

একটি ফোনকে ডাম্বফোনে পরিণত করতে হলে সম্পূর্ণ ফোন রিসেট করে নিলে উপকার পাওয়া যায়। ফ্যাক্টরি রিসেট করলে ফোনকে নতুনরুপে ব্যবহার শুরু করা যাবে। তবে রিসেট করার সময় কখনোই পূর্ববর্তী ব্যাকআপ ব্যবহার করা যাবে না, এটি করলে রিসেট করার প্রধান কারন ঠিক থাকবে না। তবে এক্ষেত্রে অতিব গুরুত্বপূর্ন ডাটা গুলো আগে থেকেই অন্য কোথাও সংরক্ষণ করে রাখলে ভালো হয়। কারণ ফোন রিসেট করলে ফোনে থাকা ডাটা মুছে যায়।

অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ ডিলিটের মাধ্যমে

ফোনে থাকা অপ্রয়োজনীয় বা সময় খরচকারী অ্যাপগুলো অবশ্যই ডিলিট করতে হবে। এর মধ্যে টুইটার, ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম, টিকটক, এ ধরনের অ্যাপ সবার আগে ডিলিট করতে হবে। কেননা এসকল অ্যাপ প্রচুর সময় নিয়ে নেয়। সবচেয়ে সহজ উপায় হলো যেসকল অ্যাপ ডাম্বফোনে ইন্সটল করা সম্ভব না সেগুলো ডিলিট করে ফেলতে হবে।

ব্রাউজারে কাজ করা সম্ভব এমন অ্যাপ ডিলিট করার মাধ্যমে

যেসকল প্রয়োজনীয় জিনিস ওয়েব ব্রাউজারে করা সম্ভব সেগুলোর জন্য আলাদা করে অ্যাপ নামানোর কোনো প্রয়োজন নেই। এসব কাজের জন্য আলাদা করে অ্যাপ ব্যবহার করলে সময় নষ্ট হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে। সাধারণত অ্যাপ এ কাজ করার অভিজ্ঞতা ব্রাউজারে কাজ করার অভিজ্ঞতা থেকে বেশি আকর্ষণীয় হয়ে থাকে। কিন্তু আমাদের যদি কাজ করার অভিজ্ঞতা ভালো আসে তাহলে আমরা সেই কাজ বেশি করে থাকি- যেটা ডাম্বফোনের বৈশিষ্ট্য এর মধ্যে পড়ে না। তাই ব্রাউজারের মাধ্যমে কাজ করার প্রবণতা বৃদ্ধি করতে হবে।

ওয়েব ব্রাউজার লুকিয়ে ফেলুন

যদি আপনি সম্পূর্ণ ইন্টারনেট ফ্রি ডাম্ব ফোন ব্যবহার করতে চান তাহলে ফোনের মধ্যে থাকা সকল ওয়েব ব্রাউজার লুকিয়ে ফেলতে হবে। যদিও ওয়েব ব্রাউজার সম্পূর্ণ ভাবে ডিলিট করার সুযোগ পাওয়া যাবে না কিন্তু এটিকে চোখের আড়ালে রাখা সম্ভব। এটিকে হোম স্ক্রিন থেকে দূরে সরিয়ে রাখলে ফোন আনলক করলেও এর প্রতি মোহিত হবেন না।

সকল প্রকার নোটিফিকেশন বন্ধ করুন

স্মার্টফোন নিঃসন্দেহে সবচেয়ে মনোযোগ নষ্টকারী বস্তু। আর স্মার্টফোনকে এমন বস্তু বানাতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে এর নোটিফিকেশন। আপনি যেসকল অ্যাপ ই নামান না কেন তারা আপনাকে বার বার নোটিফিকেশন পাঠিয়ে অ্যাপে ঢুকতে বাধ্য করবে। সেজন্য আপনার ফোনে যত প্রকার অ্যাপ থাকুক না কেন নোটিফিকেশন অফ করে রাখলে আপনার ডাম্বফোন তৈরির মিশন সফল হবে।

হোম স্ক্রিনকে সিম্পল রাখুন

যখন আপনি আপনার আইফোন বা স্মার্টফোনটি চালু করেন তখন আপনি আপনার সকল ব্যবহৃত অ্যাপ গুলো হাতের নাগালের মধ্যে রাখতে চান। কিন্তু আপনি যদি আপনার স্মার্টফোনকে একটি ডাম্বফোনে পরিণত করতে চান তাহলে আপনার ফোনের হোম স্ক্রিনটি এমন ভাবে সাজিয়ে রাখুন যাতে করে অতি প্রয়োজনীয় অ্যাপ ছাড়া অন্য কোনো অ্যাপ আপনার হোম স্ক্রিনে না থাকে।

ফোনের ডিসপ্লের কালার পরিবর্তন করুন

স্মার্টফোন তৈরি করা হয়েছে মানুষকে তার প্রতি আকৃষ্ট করার জন্য। স্মার্টফোনের বিভিন্ন কালার বৈচিত্র্য এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। আপনার ফোনকে ডাম্বফোন করার জন্য ফোনের রঙিন ডিসপ্লেকে সাদা কালো ডিসপ্লেতে পরিণত করে তুলুন। এতে করে আপনার ফোন কম আকর্ষণীয় হবে এবং আপনি এটি ব্যবহার করার মাত্রা কমিয়ে দিবেন।

বর্তমান সময়ে স্মার্টফোন মানুষকে উপকারের সাথে অনেক অপকারও করছে। অতিরিক্ত স্মার্টফোন ব্যবহারের ফলে মানুষ স্বাস্থ্য ঝুকিতে পড়ে যাচ্ছে। এছাড়া এখনকার সময়ের বাচ্চারা পর্যন্ত স্মার্টফোনের প্রতি আসক্ত হয়ে তাদের মানসিক বিকাশ ক্ষতিগ্রস্থ করে তুলছে। এসকল দিক বিবেচনা করে স্মার্টফোনকে ডাম্বফোনে রুপান্তর করাটা অনেকের জন্য শ্রেয় বলে মনে করা হয়। স্মার্টফোন সম্পর্কিত আমাদের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কেমন লেগেছে তা আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারবেন। নিত্য নতুন প্রযুক্তি ভিত্তিক আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ওয়েবসাইটে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *